ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ বাড়ানোর উপায়

আসসালামু আলাইকুম, ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ বাড়ানোর উপায় পোস্টে আপনাদের স্বাগতম। নতুন ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ করতে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার এবং ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচটাইম প্রয়োজন হয়। আমরা সবাই খুব দ্রুত ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ পেতে চাই। কিন্তু শুরুর সময়ে একজন নতুন ইউটিউবারের জন্য এটা বেশ কঠিন কাজ।

আপনি কিভাবে ইউটিউব সাবস্ত্রাইবার বাড়াবেন এবং তার সাথে ভিডিওতে অনেক ভিউ নিয়ে আসবেন তা আজকের পোস্টটি (youtube subscribe baranor upay) পড়লে জানতে পারবেন। 

ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ বাড়ানোর উপায়
ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ বাড়ানোর উপায়
আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি যে, আপনি যদি এই পোস্টে দেওয়া পদক্ষেপগুলি ভালভাবে প্রয়োগ করেন তবে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার ও ভিডিওতে ভিউ খুব দ্রুত বাড়বে। একই সাথে, আপনার চ্যানেলটিও শীঘ্রই মনিটাইজ হবে এবং এতে ভাল আয়ও আসতে শুরু করবে। 

ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর উপায়

ইউটিউবের মানদন্ড মেনে সাবস্ত্রাইবার বাড়ানোর সঠিক উপায় গুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করবো। আরও বলব কিভাবে অল্প টাকায় ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার কিনতে পারবেন। আমরা আপনাকে আগেই বলেছি যে, ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জন এবং ইউটিউবের মানদণ্ড পূরণ করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হল সাবস্ক্রাইবার।

তাই আমরা আপনাকে ফ্রি ইউটিউব সাবস্ক্রাইব দ্রুত বাড়াতে এমন কিছু উপায় বলব, যা আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ বাড়াবে।

  • Quality Content আপলোড করুন।
  • ভিডিওতে Attractive Thumbnail রাখুন।
  • আপনার চ্যানেলের জন্য Attractive Intro রাখুন।
  • ভিডিওতে একটি ভালো Title এবং Description লিখুন।
  • হ্যাশট্যাগ ব্যবহার নিশ্চিত করুন।
  • দর্শকদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করতে বলুন।
  • social media platform আপনার ভিডিও শেয়ার করুন।
  • [message]
    • EjobWork থেকে ১ টাকায় ১ টি রিয়েল সাবস্ক্রাইবার কিনুন যতখুশি তত।
      • আপনার Youtube Channel এর জন্য Permanent Subscribe এবং Watch time নিতে চাইলে ইবওয়ার্ক microjob site থেকে ১ টাকায় ১ টি রিয়েল সাবস্ক্রাইবার নিন যত খুশি তত। সাবস্ক্রাইবার নিতে ভিজিট ইজবওয়ার্ক

১। Quality Content আপলোডঃ

ইউটিউব চ্যানেলে দ্রুত সাবস্ক্রাবার বাড়ানোর জন্য ভালো কন্টেন্ট আপলোড করতে হবে। আমরা যখন ইউটিউবে যেকোন ভিডিও দেখি, প্রথমে আমরা ভিডিওর বিষয়বস্তু দেখি সেই সাথে ভিডিওর মানও দেখি। ভিডিওটি যদি স্পষ্ট না হয় এবং সাইন্ড কোয়ালিটি ভালো না হয় তবে ভিডিওটি কেটে দেই। সুতরাং ভালোভাবে ভিডিও তৈরী করতে হবে।

যে আপনার ভিডিও দেখছে তার কাছে যদি আপনার ভিডিওটি ভালো লাগে তবেই সে আরও ভিডিও দেখার জন্য চ্যানেলটিকে সাবস্ক্রাইব করবে।

আপনি যখন আপনার চ্যানেলে মানসম্পন্ন কন্টেন্ট আপলোড করবেন, তখন আপনার ভিডিওতে আরও বেশি ভিউ আসবে এবং আপনার ভিডিওগুলি ধীরে ধীরে ভাইরাল হতে শুরু করবে এবং ধীরে ধীরে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার বাড়তে শুরু করবে।

২। ভিডিওতে Attractive Thumbnail রাখুন

আকর্ষণীয় থাম্বনেইল আপনার ভিডিওর ভিউ এবং আপনার সাবস্ক্রাইবারদের উপর বিশাল প্রভাব ফেলে। কারণ বেশিরভাগ লোক আপনার ভিডিওর থাম্বনেল দেখার পরেই ভিডিও দেখতে আসে।


লোকেরা যদি থাম্বনেইল দেখে ভিডিও দেখতে আসে এবং তারা আপনার তৈরি করা কন্টেন্ট পছন্দ করে, তবে তারা অবশ্যই আপনার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করবে। সেই কারণেই আকর্ষণীয় ইউটিউব থাম্বনেইলটি Quality Content সাথে খুব গুরুত্বপূর্ণ।

৩। চ্যানেলের জন্য Attractive Intro তৈরি করুনঃ

আপনার ইউটিউব চ্যানেলকে দ্রুত বড় করতে ইউটিউব চ্যানেলের একটি আকর্ষণীয় Intro তৈরি করতে হবে। এর জন্য, আপনি গুগল প্লে স্টোরে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন পাবেন, যেগুলি ব্যবহার করে আপনি একটি ভাল এবং আকর্ষণীয় inrto video তৈরি করতে পারেন।

আপনি যে সমস্ত বড় ইউটিউব চ্যানেল দেখেছেন তাদের নিজস্ব আকর্ষণীয় Attractive Intro রয়েছে, যার কারণে ভিডিওটি আরও ভাল এবং আরও আকর্ষণীয় দেখায়।

৪। ভালো Title এবং Description লিখুনঃ

ভিডিওর জন্য একটি ভাল Title এবং Description খুব গুরুত্বপূর্ণ। টাইটেল লেখার সময় আপনাকে কীওয়ার্ড রিচার্স করতে হবে, অর্থাৎ আপনি যে বিষয়ে একটি ভিডিও তৈরি করেছেন সেই বিষয়ে লোকেরা কীভাবে অনুসন্ধান করে।

ইন্টারনেটে এরকম অনেক বিনামূল্যের কীওয়ার্ড রিসার্চ টুল রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনি একটি ভালো টাইটে খুঁজে পেতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, গুগলের নিজস্ব বিনামূল্যের Google keywords planer একটি বিনামূল্যের কীওয়ার্ড রিসার্স টুল।

টাইটেলের জন্য একটি ভাল কীওয়ার্ড পাওয়ার পরে, আপনাকে একটি ভাল ডেসক্রিপশন লিখতে হবে। ডেসক্রিপশনে, আপনি ভিডিওগুলিতে দেখানো তথ্যগুলি সংক্ষেপে লিখতে পারেন, যা থেকে প্রতিদিন বিনামূল্যে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার বাড়াবে।

৫। হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুনঃ

আপনি নিশ্চয়ই ইউটিউবে অনেকবার দেখেছেন, যে কোন বিষয় সম্পর্কিত ভিডিও সার্চ করার সময় অনেক সময় কম সাবস্ক্রাইবার এবং উপরে কম ভিউ সহ ভিডিও দেখেন, তাহলে কেমন হয়?

হ্যাশট্যাগের কারণে এটি ঘটে। এবং এটা স্পষ্ট যে আপনার ভিডিও যদি শীর্ষে আসে তাহলে আপনার ভিউও বাড়বে এবং সাবস্ক্রাইবার বাড়বে।

তাই আপনি যদি আপনার ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার বাড়াতে চান, তাহলে আপনাকে আপনার ভিডিওতে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করতে হবে।

৬। আপনার দর্শকদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করতে বলুনঃ

একটি ভিডিও তৈরি করার সময়, আপনাকে আপনার ভিডিওর শুরুতে বা ভিডিওর শেষে ভিডিওটি দেখার জন্য ব্যবহারকারীকে আপনার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করার জন্য মনে করিয়ে দিতে হবে, এতে সাবস্ক্রাইব করার ইচ্ছা জাগ্রত হবে এবং আপনার ভিডিও যদি ভাল হয় তবে তিনি আপনার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করবে।

৭। সামাজিক মাধ্যমে ভিডিও শেয়ার করুনঃ

আপনি যদি একজন নতুন ইউটিউবার হন তবে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর সেরা উপায় হল ভিডিওগুলি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা।

আপনি ভিডিও শেয়ার করতে এবং আপনার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার বাড়াতে Whatsapp, Facebook, Instagram এর মত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করতে পারেন।

৮। মাইক্রোজব সাইটে থেকে সাবস্ক্রাইবার নিনঃ

মাইক্রোজব সাইট থেকে ১ টাকা দিয়ে ১ টি করে রিয়েল সাবস্ক্রাইবার নিতে পারবেন। আপনি যত খুশি তত সাবস্ক্রাইবার নিতে পারবেন। এর জন্য একটি মাইক্রোজব ফিলেন্সিং সাইট খুজে নিতে হবে। যেখানে হাজারও ফ্রিলেন্সার আছে যারা আপনার ইউটিউব চ্যানেলটিকে সাবস্ক্রাইব করার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করবে। একজন ব্যক্তি একটি ডিভাইস দিয়ে শুধুমাত্র একবার আপনার চ্যানেলটিকে সাবস্ক্রাইব করবে। তাই, একদম রিয়েল সাবস্ক্রাইবার পাবেন মাইক্রোজব সাইটে। 

বাংলাদেশের সেরা মাইক্রোজব সাইট হলো ইজবওয়ার্ক। যেখানে আপনার ইউটিউব সাবস্ক্রাইব, ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ, লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার, ফেসবুক পেইজ লাইক ও ফলো, বিজ্ঞাপনে ক্লিক ইত্যাদি কাজ করিয়ে নিতে পারবেন। 


আশা করি, ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার ও ভিউ বাড়ানোর উপায় (youtube subscribe baranor upay) জানতে পেরেছেন।

শেয়ার করুন:

No Comment
Add Comment

দয়া করে কমেন্ট নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন - অন্যথায় আপনার মন্তব্য গ্রহণ করা হবে না।

comment url